ক্যান্সারের সঙ্গে যুদ্ধে জয়ী হয়েছেন বলিউডের অভিনেত্রী মনীষা ।

0

‘মাইলস টু গো বিফোর আই স্কিপ’—-রবার্ট ফ্রস্টের কবিতার এই বিখ্যাত লাইনই এখন মনীষা কৈরালার জীবনের মূলমন্ত্র। মারণরোগ ক্যান্সারের সঙ্গে কঠিন যুদ্ধে জয়ী হয়েছেন বলিউডের এই অভিনেত্রী। মনীষা নিজেই বলেন, ক্যান্সার তাঁর জীবনে অভিশাপ নয়, বরং আশীর্বাদ হয়ে এসেছিল। নিজেকে ভাগ্যবতী মনে করেন মনীষা। কারণ দ্বিতীয়বার বাঁচার সুযোগ পেয়েছেন তিনি।

ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াইয়ে জিতে যাওয়ার পর থেকে সুযোগ পেলেই ঘুরতে বেরিয়ে পড়েন মনীষা। জঙ্গল যে অভিনেত্রীর অন্যতম পছন্দের গন্তব্য, সেই আন্দাজ আগেই পাওয়া গিয়েছিল মনীষার ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডেল থেকে। এবারও সেই জঙ্গলেই ঘুরতে গেছেন অভিনেত্রী। বরাবরই সোশ্যাল মিডিয়ায় অ্যাকটিভ তিনি। তাই নিজের ট্র্যভেল ডায়েরির নানা মুহূর্ত শেয়ার করেছেন ইনস্টাগ্রামে। ছবি-ভিডিও শেয়ার করে মনীষা লিখেছেন, ‘পুনরায় শক্তি সঞ্চয় করছি।’ সেই সঙ্গে লিখেছেন রবার্ট ফ্রস্টের বিখ্যাত কবিতার দু’লাইন।

নেপালের রাজপরিবারের মেয়ে মনীষা। বলিউডে অভিষেকের পর শুধু সৌন্দর্য নয়, অভিনয়দক্ষতায়ও দর্শকের মন জয় করেছিলেন তিনি। তাঁর ছিপছিপে চেহারা, মিষ্টি হাসির জাদুতে মজে ছিলেন দর্শকরা। রোমান্টিক ফিল্মের নায়িকাদের সারিতে অল্পদিনের মধ্যেই নিজের জায়গা পাকা করে নিয়েছিলেন তিনি। তবে এই সব কিছুর সঙ্গে এখন আরো একটা নামে দুনিয়া মনীষাকে চেনে। তিনি ক্যান্সারজয়ী।

দীর্ঘ সময়ের চিকিৎসার পর এখন মনীষা ক্যানসার মুক্ত। জীবনের এক কঠিন লড়াইয়ে জিতেছেন তিনি। ক্যানসারের সঙ্গে যুদ্ধ জয়ের পর থেকে নিজের সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন পোস্টে এই মারণরোগের সঙ্গে যারা প্রতিনিয়ত লড়াই করছেন তাদের অনুপ্রেরণা দেওয়ার চেষ্টা করেন মনীষা। আর সুযোগ পেলেই শেয়ার করেন নিজের ট্রাভেল হিস্ট্রি।

ক্যানসারের সঙ্গে লড়াইয়ে জিতে জীবনের ট্র্যাকে ফেরার পাশাপাশি শ্যুটিং ফ্লোরেও দেখা গেছে নায়িকাকে। সিনেমা থেকে ওয়েব সিরিজ, সব জায়গাতেই চুটিয়ে কাজ করছেন তিনি। জীবনে দ্বিতীয়বার ভালভাবে বাঁচার সুযোগ পেয়ে প্রতিটা মুহূর্ত উপভোগ করছেন এই অভিনেত্রী ।

সূত্র : দ্য ওয়াল।

Share.

About Author

Leave A Reply